আরোহীচালকুমড়া

চালকুমড়া এর উপকারিতা ও ঔষধ গুনাগুন

চালকুমড়া এর উপকারিতা ও ঔষধ গুনাগুন

বৈজ্ঞানিক নামঃ Benincasa hispida Cogn. Syn. Cucurbita hispada Thumb.
পরিবারঃ Coucurbitaceae 
ইংরেজি নামঃ Ash Gourd

পরিচিতি

এই লতানো গাছটি বাংলাদেশের প্রতি গৃহস্থবাড়ির চালে বা বাঁশের মাচায় দেখা যায়। এটিকে অঞ্চলভেদে সাঁকি কুমড়া, চুনাকুমড়া, সাদাকুমড়া বা ডিমি কমড়া বলা হয়। এর লতায় ও পাতায় লোম আছে পাতা সবুজ ও গোলাকৃতি। ফুল একক ও হলুদ। ফল লম্বাটে গোলাকার; পাকলে গায়ে সাদা আবরণ পড়ে, তাই একে সাদাকুমড়া বা চুনাকুমড়া বলে । গ্রীষ্ম ও বর্ষাকালে ফুল ও ফল হয়। সাধারণত কচি ফল সবজি হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এটিকে জালি কুমড়াও বলা হয়। পাকা ফল অনেকদিন ঘরে রাখা যায় এ দিয়ে হালুয়া বা মোরব্বা তৈরি করা যায়।


ঔষধি গুন

১। চালকুমড়া কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে (Chevallier,1996)। কোষ্ঠকাঠিন্য ওষুধেও স্বাভাবিক হচ্ছে না। এ ক্ষেত্রে চালকুমড়ার ৪/৫ চা চামচ রসে গরম দুধে মিশিয়ে খাওয়াতে হবে। এতে কোষ্ঠকাঠিন্য স্বাভাবিক হবে।

২। খুসখুসে কাশির সাথে জ্বর, প্রাথমিকভাবে যক্ষা বলে মনে হতে পারে। এ ক্ষেত্রে চালকুমড়ার ৪/৫ চা চামচ রসের সাথে  একটু চিনি ও দুধ মিশিয়ে সকাল-বিকাল দু’বেলা খাওয়ালে উপকার পাবেন। চালকুমড়ায়  Saponin বিদ্যমান, যা কাশি সরাতে সাহায্য করে (Ghani,2002)।

৩। কৃমি দমনে অনেক ব্যবস্থা আছে। চালকুমড়া বীজ ফিতাকৃমি দমনে কার্যকর (chopra et al, 1995)। চালকুমড়া বীজের ২ গ্রাম শাঁস বেটে খাওয়ালে কৃমি দমন হবে।

৪। ধীশক্তি ক্ষয়ে কুমড়ার শাঁস বাটা মধুর সাথে মিশিয়ে শরবত তৈরি করে খেলে উপকার পাওয়া যায়।

৫। পেট ফাঁপা আর প্রস্রাবও ভালো হচ্ছে না। এমন অবস্থা সরাতে চালকুমড়ার রস পেটে মালিশ করতে হবে। এতে ১০/১৫ মিনিটের মধ্যে কাজ দেবে।


Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker