Home » সুপারির উপকারিতা ও ঔষধি গুন
বৃক্ষ সুপারি

সুপারির উপকারিতা ও ঔষধি গুন

সুপারির উপকারিতা ও ঔষধি গুন

সুপারির উপকারিতা ও ঔষধি গুন

পরিচিতি

সুপারি (Betel Nut, Plam) গাছ বেশ শক্ত, সরু ও লম্বা; নারিকেল গাছের মতো শাখা-প্রশাখাহীন গাছ। তবে বাঁশের মতো মোটা হয়। লম্বায় সচরাচর ৮/১০ মিটার হলেও অনেক ক্ষেত্রে ১৫ মিটার পর্যন্ত হতে দেখা যায়। নারিকেল পাতার মতো পত্রদণ্ডের পরস্পর বিপরীত দিকে পত্রকগুলো থাকে এবং লম্বায় ৫০-৬০ সে.মি. পর্যন্ত হয়। আর পত্রদণ্ড লম্বায় ২/৩ মিটার পর্যন্ত হতে দেখা যায়। পুষ্পদণ্ডও প্রায় নারিকেলের পুষ্পদণ্ডের মতো (বহু শাখা-প্রশাখা) বিভক্ত পুষ্পমঞ্জরিসম্পন্ন। প্রতিটি মঞ্জরির গোড়ায় ৩৫০টি স্ত্রী ও আগায় প্রায় ৪৮,০০০ পুরুষ ফুল থাকে। ফল কাঁচা অবসাথায় সবুজ ও পাকা অবস্থায় গাঢ় হলুদ বা কমল রং ধারণ করে।

ঔষধি গুণ

সুপারি রসবহ ও রক্তবহ স্রোতে কাজ করে।

১। গুঁড়া কৃমির ‍উপদ্রব দেখা দিলে ৪ গ্রাম সুপারি থেঁতো করে ৩ কাপ পানিতে সিদ্ধ করে এক কাপ থাকতে নামিয়ে ছেঁকে নিয়ে তা সকাল – বিকাল দুইবার খেলে উপশম হবে। তবে বাচ্ছাদের জন্য এ পরিমাণ অর্ধেক করেতে হবে।

২। উপর্যুক্ত বিধানের সাথে বেলশুঁঠ (কাঁচা বেল শুকিয়ে চূর্ণ করা) এক গ্রাম মিশিয়ে দু্ইবেলা খেলে রক্ত আমাশয় সেরে যায়।

৩। পেটে অজীর্ণের ক্ষেত্রে উক্ত পদ্ধতিতে সুপারি ক্বাথ তৈরি করে দিনে দুইবেলা খেলে সেরে যায়।

৪। ঘা পচে গিয়ে দুর্গন্ধ হয়ে গেলে এবং বিশ্রী স্রাব নির্গত হরে কাঁচা সুপারির্ ভালোভাবে শুকিয়ে খোসাসহ থেঁতো করে তার মিহি গুঁড়া ঘায়ে লাগালে ঘা যেমন শুকিয়ে যাবে, তেমনি দুর্গন্ধও দূর হবে।

৫। সুপারিতে ফেনোল জাতীয় রাসায়নিক উপাদান রয়েছে, যা দাঁতের ক্যারিস ও পায়োরিযা সারাতে সাহায্য করে।

অন্যান্য ব্যবহার

সুপারি ফল পান সহযোগে অনেকে খেয়ে থাকেন। পরিপক্ব গাছ ঘরের জানালার শিক, কাঁচাঘরের খুঁটি, চালের ফ্রেম ইত্যাদি তৈরিতে ব্যবহার হয়।

সুপারির,সুপারির দাম,সুপারির উপকারিতা,সুপারির বাজার,সুপারির পাইকারি বাজার,সুপারির জাত,সুপারির,অপকারিতা,সুপারির ব্যবসা,সুপারির বাজার দর,সুপারির ব্যবহার,সুপারির চারা তৈরি,
সুপারির হিসাব,সুপারির ক্ষতিকর দিক,সুপারির চারা উৎপাদন,সুপারির ইংরেজি কি,সুপারির চাষ,সুপারির চারা,সুপারির হাট,সুপারির উপকার,সুপারির বৈজ্ঞানিক নাম,সুপারির উপকারিতা ও অপকারিতা,সুপারি দাম,
বর্তমান সুপারির দাম







past