Home » গুলঞ্চ লতা এর উপকারিতা ও ঔষধি গুনাগুন

গুলঞ্চ লতা এর উপকারিতা ও ঔষধি গুনাগুন

গুলঞ্চ লতা এর উপকারিতা ও ঔষধি গুনাগুন

গুলঞ্চ লতা এর উপকারিতা ও ঔষধি গুনাগুন

বৈজ্ঞানিক নামঃ Tinospora tomentosa Miers.
পরিবারঃ Menispermaceae
ইংরেজি নামঃ Tinospora

পরিচিতি

গুলঞ্চ একটি দীর্ঘ লতানো উদ্ভিদ, অন্য গাছকে আম্যয় করে বেড়ে ওঠে। পুরোনো লতা আঙুলের মতো মোটা, বুটি দানাযুক্ত, ছাল পাতলা, নিচে সবুজ ও ভেতরটা যেন এক গোছা সাদা সুতা, স্বাদে তিক্ত ও পিচ্ছিরে। পাতা পান আকৃতির, শীতকালে ঝরে যায় আবার বসন্তে নতুন পাতা গজায়। গ্রীষ্মকালে ছোট হলুদাভ সাদা ফুল হয়। শীতকালে ফল ধরে। বীজ লাল মটরের দানার মতো। এটিকে গুচই লতা বা মুচিকানির লতা অনেকে বলে থাকেন। এ গণের অন্য একটি গুল্ম দেখা যায়, যার লতায় বুটি নেই এবং স্বাদে অপেক্ষাকৃত কম তিক্ত। বৈজ্ঞানিক নাম T. cordifolia.


বিস্তিৃতি

গুলঞ্চের আদি নিবাস মালয়েশিয়া । বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল এবং পাহাড়ি অঞ্চলে দেখা যায়। এই গণের প্রজাতির সংখ্য ৪০টি।

ঔষধি গুন

১। মুখে কোনো খাবার না রুচলেই বলে অরুচি। অরুচি তাড়াতে গুলঞ্চ পাতা ভাজা খেয়ে দেখুন। আশানুরুপ ফল পাবেন।

২। গুলঞ্চ হৃৎপিণ্ডের সমস্য (Cardiac Problems)  চিকিৎসায় ব্যবহহৃত হয় (Ghani, 2003), অনেকের অল্প হাঁটা বা ২/১ তলার সিঁড়ি ভাঙতে বুক ধরফড় শুরু হয়, হৃৎস্পন্দন বেড়ে যায়। এই যাদের অবস্থা তার ৫/৭ গ্রাম গুলঞ্চের সাথে ১২০ মি.গ্রা. গোলমরিচের গুঁড়া মিশিয়ে খেয়ে দেখুন উপকার পাবেন।

৩। ১০/১৫ গ্রাম গুলঞ্চ থেঁতো করে ক্বাথ তৈরি করে পচা ঘা ধুয়ে ফেললে গায়ের পচা ভাব কমে যাবে। পরে শুকিয়ে আসবে।



৪। গুলঞ্চ জ্বর নিবারক হিসেবে কাজ করে, অকেকের সর্দি-কাশি ছাড়াই হঠাৎ জ্বর আসে আবার সহসাই ছেড়ে যায়। এমন অবস্থায় ৮-১০ গ্রমা গুলঞ্চ থেঁতো করে ক্বাথ তৈরি করে ছেঁকে ঠাণ্ডা হলে খাওয়াতে হবে। এতে উপকার পবেন।

৫। অতৃপ্ত পিপাসার বিষয়ে আগেও উল্লেখ করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে পানিও পিপাসা সরাতে ব্যর্থ। এমন অবস্থা হলে গুলঞ্চ লতা টুকরো টুকরো করে কেটে ও মৌরি একত্রে পানিতে ভিজিয়ে ঔ পানি একটু একটু করে খেতে হবে। এতে পিপাসার অবসান হবে (Bhattacharia,1996)।

৬। গুলঞ্চের ক্বাথ একটু টকটু করে খেলে কৃমির উপদ্রবও কমে যায়।

৭। যাদের শরীরে মেদ জমে গেছে, ডায়েটিং করেও কমাতে পারছেন না তারা শরীরে বাড়তি মেদ-ওজন কমাতে গুলঞ্চ ব্যবহার করে দেখুন। গুলঞ্চের ৮/১০ গ্রাম ক্বাথের সাথে ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে মাসখানেক খেয়ে দেখুন; হতাশ হবেন না।


Sending
User Review
0% (0 votes)







past